সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে উদ্বেগে তরুণরা

228

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : ফেসবুক-টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার তরুণ তুর্কীদেরকে আরো উদ্বিগ্ন করে তুলছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ বিষয়টি জানা গেছে।

ডিচ দ্য লেবেল নামের একটি অ্যান্টি-বুলিয়িং বা পীড়ন-বিরোধী দাতব্য সংস্থা এই গবেষণাটি চালিয়েছে।
এই গবেষণা জরিপে অংশ নেয়াদের মধ্যে ৪০ শতাংশ বলছে, কেউ যদি তাদের সেলফিতে লাইক না দেয়, তাহলে তারা খারাপ বোধ করে। তবে ৩৫ শতাংশ বলছে তাদের কি পরিমাণ ফলোয়ার বা অনুসারী তার উপর সরাসরি নির্ভর করে তাদের আত্মপ্রত্যয়ের ব্যাপারটি।

প্রতি তিন জনে একজন বলছে তারা সারাক্ষণই সাইবার-বুলিয়িংয়ের বা পীড়নের আতঙ্কে থাকে।
একজন বিশেষজ্ঞ বলছেন, সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে শিশুরা ‘বৈরিতার সংস্কৃতির’ মধ্যে বেড়ে উঠছে।

প্রায় দশ হাজার তরুণ তরুণীর উপর এই জরিপটি চালানো হয়। এদের বয়েস ছিল ১২ থেকে ২০ এর মধ্যে।
এই জরিপে বেরিয়ে এসেছে সাইবার-বুলিয়িং ব্যাপক বিস্তৃতি লাভ করেছে।

গবেষণায় আরও প্রকাশিত হয়েছে পারস্পরিক ঘৃণা ছড়ানোর জন্য সবচাইতে বেশী ব্যবহৃত সোশ্যাল মিডিয়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম।

এতে ৭০ শতাংশ অংশগ্রহণকারী স্বীকার করেছে যে তারা অনলাইনে অন্যের উপর পীড়নমূলক আচরণ করে। ১৭ শতাংশ দাবী করেছে তারা অনলাইনে পীড়নের স্বীকার হয়েছে। তাদের অর্ধেকই বলেছে যে তারা অনলাইনে তাদের সাথে ঘটে যাওয়া খারাপ আচরণগুলো নিয়ে আলোচনা করতে চায় না।

সূত্র : বিবিসি বাংলা।

Previous articleনায়িকা শাবানার ‘তওবা’ ও আজীবন সম্মাননা!
Next articleহজযাত্রীদের ই-ভিসা জটিলতা দূর করুন