অবশেষে তত্ত্বাবধায়কের চেয়ারে বসলেন জনপ্রিয় ডা. লিটু

193

 

কল্যাণ রিপোর্ট : অবশেষে যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে যোগ দিতে পেরেছেন জনপ্রিয় চিকিৎসক আবুল কালাম আজাদ লিটু।
আজ শনিবার সকাল পৌনে ১১টার দিকে ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবদুর রহিম মোড়লের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি দায়িত্ব বুঝে নেন। যোগদান অনুষ্ঠানে হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাক্তার আব্দুর রউফ ও ডাক্তার হিমাদ্রিশেখর ছাড়া কোনো চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন না।
ডা. লিটুকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে নিযুক্ত করার পর সরকারপন্থী প্রভাবশালী কিছু ডাক্তার সক্রিয় হয়ে ওঠেন। তারা লিটু যাতে এই চিকিৎসা কেন্দ্রে যোগ দিতে না পারেন, তার জন্য সব চেষ্টাই করেন।
জানতে চাইলে বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুর রহিম মোড়ল বলেন, আইনি জটিলতার কারণে গত সপ্তাহে ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ লিটু যোগদান করতে পারেননি। তিনি দেশের বাইরে ছিলেন। বিদেশ থেকে আসার পরে ডিজি অফিসে যোগদান করে ছাড়াপত্র নিয়ে আজ কর্মস্থলে যোগ দিলেন।
এক প্রশ্নে ডা. মোড়ল বলেন, ‘আমি হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক পদের দায়িত্ব নিতে চাইনি। সরকার মনে করেছিল তাই দায়িত্ব পালন করেছি। মাত্র দুই মাসের মতো যশোর জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে আমার অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। আবুল কালাম আজাদ সাহেব যোগদান করেছেন। আমি তাকে প্রতিষ্ঠানটি চালাতে সব ধরনের সহযোগিতা করবো।’
ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ লিটু বলেন, ‘এর ভেতর অনেক ব্যাপার ছিল। ভেতরে ভেতরে ডাক্তার হিমাদ্রিশেখরকে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক পদে বসানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। সকল বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে অবশেষে আমি দায়িত্ব বুঝে নিয়েছি।’
এক প্রশ্নের জবাবে ডাক্তার লিটু বলেন, ‘খুবই ভালো লাগছে। যশোরবাসীর সেবা করার যে দায়িত্ব আমাকে দেওয়া হয়েছে, তা আমি যথাযথভাবে পালন করে যাব। আমি সকলের সহযোগিতা চাই।’
ডা. লিটুর যোগদান অনুষ্ঠানে অনুপস্থিতি প্রসঙ্গে ডাক্তার হিমাদ্রি শেখর বলেন, ‘আউটডোর ও বিভিন্ন ওয়ার্ডে ডাক্তাররা দায়িত্ব পালন করছে। সেই কারণে যোগদান অনুষ্ঠানে ডাক্তারদের উপস্থিতি কম।’
গত সপ্তাহে যখন ডা. লিটু হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে যোগ দিতে গিয়েছিলেন, তখন বিপুল সংখ্যক ডাক্তার ডিউটি বাদ দিয়ে তাকে ঠেকাতে সভায় মিলিত হন। এই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ডা. হিমাদ্রি কৌশলে এড়িয়ে যান।