বাগেরহাটে নারীর পা কুপিয়ে বিচ্ছিন্ন

181

 

বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি : বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় এক ব্যক্তি সত্তরোর্ধ্ব নারীর পা কুপিয়ে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে।
ওই নারীর ছেলের সঙ্গে শত্রুতার জেরে এই হামলা হয়েছে বলে পুলিশ ধারণা করছে।
শরণখোলা থানার ওসি কবিরুল ইসলাম জানান, আহত হোসনে আরা বেগম মঞ্জুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
হোসনে আরা ওই উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের কালিবাড়ি গ্রামের নূরুল ইসলাম ফকিরের স্ত্রী।
ওসি কবিরুল পরিবারের বরাতে বলেন, হোসনে আরার ছেলে ফকির মোস্তফা কামাল অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা। বর্তমানে তিনি ঢাকায় পোশাক ব্যবসা করেন।
“শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে হোসনে আরা বাড়ির উঠানে হাঁটাহাঁটি করছিলেন। এ সময় অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি এসে বলেন, ‘আমি তোমার ছেলের জন্য ঢাকায় থাকতে পারলাম না।’ এ কথা বলেই তিনি তার ব্যাগ থেকে ধারালো অস্ত্র বের করেন। কুপিয়ে পা কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়ে পালিয়ে যান। তার বাম পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।”
চিৎিকার শুনে তার স্বামী নূরুল এসে তাকে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক অসীম কুমার সমাদ্দার বলেন, “তার বাম পায়ের হাঁটুর নিচে থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় তার অবস্থা সংকটাপন্ন। রাতেই তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।”
পুলিশ হামলাকারীকে শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন ওসি কবিরুল।

Previous article‘নির্বাচনে ভারত হস্তক্ষেপ করবে না, আগেও করেনি’
Next articleসাতক্ষীরা সীমান্তে ৭৫টি উট পাখির বাচ্চা উদ্ধার