যশোরে হত্যার দায়ে দুজনের যাবজ্জীবন

191

কল্যাণ ডেস্ক: যশোরে আব্দুল আলিম নামে এক ব্যক্তি হত্যার দায়ে দুই জনকে যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে আসামিদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় চার জন খালাস পেয়েছেন। বুধবার যশোরের স্পেশাল জজ (জেলা জজ) আদালতের বিচারক শেখ ফারুক হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। বিশেষ পিপি এসএম বদরুজ্জামান পলাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলো– ঝিকরগাছা উপজেলার হরিদ্রাপোতা গ্রামের জামাল উদ্দিন সরদারের ছেলে আব্দুল আজিজ লাল্টু ও ছবেদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম। তারা কারাগারে রয়েছে। খালাস পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন– ফরমাজুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর, আসাদুজ্জামান ওরফে সায়েম ও রেহাঙ্গীর। আদালত সূত্র জানায়, হরিদ্রাপোতা গ্রামের তোফাজ্জেল সরদারের সঙ্গে আসামিদের জমিজমা নিয়ে বিরোধ ছিল। ২০০২ সালের ২৪ অক্টোবর সকালে তোফাজ্জেল সরদারের জমির একটি তালগাছ কাটতে যায় আসামিরা। এ খবর পেয়ে তোফাজ্জেল সরদার ও তার তিন ছেলে আব্দুল আলিম, সরোয়ার, ডালিম, হায়দার, মেয়ে ফহিমা ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দেন। তখন আসামিরা আব্দুল আলিমকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এসময় অন্যরাও গুরুতর আহত হন। এ ব্যাপারে ওইদিন তোফাজ্জেল হোসেন বাদী হয়ে ঝিকরগাছা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এ মামলার তদন্ত শেষে ৭ জনকে অভিযুক্ত ও ৮ জনের অব্যাহতি চেয়ে ৮ ডিসেম্বের আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুর রাজ্জাক খান। মামলাটি বিচারের জন্য জেলা জজ আদালতে বদলি হওয়ার পর বিচার চলাকালে জামাল হোসেনের মৃত্যু হওয়ায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এরপর দীর্ঘ সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামি আব্দুল আজিজ ও রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাদের প্রত্যেককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

Previous articleইভিএম ব্যবহারের অধ্যাদেশে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর
Next articleকাদের সিদ্দিকী এখন ঐক্যফ্রন্টে