নৌকা উন্নয়নের পথ দেখায় : আফিল

222


ইসমাইল হোসেন, নাভারন (যশোর) প্রতিনিধি : নৌকা দেশকে সমৃদ্ধির দিকে নিয়ে যায়। নৌকা স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। নৌকা উন্নয়নের পথ দেখায়। আগামী ৩০ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে আমরা আপনাদের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই।
একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে গতকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী গণসংযোগের শার্শা সদর ইউনিয়নের গোটা নাভারন এলাকা, শ্যামলাগাছী, বেড়ে নারায়নপুর ও বিভিন্ন হাট-বাজার ও গ্রামে পথসভায় যশোর-১ (শার্শা) আসনে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট মনোনীত প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দীন এমপি নৌকা প্রতীকের ভোট প্রার্থনা করে এ কথা বলেন।
তিনি এই আহ্বান জানান তিনি। শার্শা ইউনিয়নের এই পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।
তিনি বলেন, আজ বাংলার গ্রামে গ্রামে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। আপনাদের কাছে আমাদের আহ্বান, আপনারা অতীতে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশের মানুষ স্বাধীনতা পেয়েছে। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে, সম্মান পেয়েছে। আমরা এই দেশে কোনও অন্যায়-অবিচারকে বরদাস্ত করবো না। কোনও জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের স্থান বাংলার মাটিতে হবে না।
তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগের চিন্তা-চেতনা আর ওদের (বিএনপি-জামায়াত) চিন্তা-চেতনায় তফাৎ কোথায়, তা আপনারাই বুঝতে পারবেন। যারা এতিমের টাকা মেরে খায়, যারা জনগণকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারে, যারা দেশকে ধ্বংস করতে জানে, বাংলাদেশকে পাঁচ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন করে তারা কীভাবে একটা দেশের উন্নতি করবে ? যারা নিজেদের ভিক্ষুক হিসেবে অন্যের কাছে হাত পেতে চলতে চায়।
বাংলাদেশ হাত পেতে চলবে না উল্লেখ করে শেখ আফিল উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশ উন্নত হবে, সমৃদ্ধশালী হবে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের সুনাম হয়। বিএনপি জোট ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশ তিরস্কৃত হয়। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদই হয়ে যায় তাদের মূল কাজ। এই বাংলাদেশকে উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।
বিএনপি সারা দেশের প্রায় ১৪/১৫টি শহরে ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড, হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে উল্লেখ করে শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বলেন, ‘আমরা গাছ লাগাই, তারা গাছ কাটে। জনগণের সম্পদ ধ্বংস করে। তারা দুর্নীতি, লুটপাট করেছে। বিএনপি ধ্বংস করতে জানে, সৃষ্টি করতে জানে না। চলন্ত বাসে আগুন দিয়েছে, রেল গাড়িতে আগুন দিয়েছে। ৫ শ’ মানুষকে হত্যা করেছে। জীবন-জীবিকার পথ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বিএনপি এই কয় বছরে হাজার হাজার গাড়ি পুড়িয়েছে। এই ধরনের আন্দোলন আমরা কখনোই দেখিনি। আন্দোলন জনগণের জন্য, জনগণের দাবি আদায়ের জন্য। যখন জনগণ প্রতিরোধ করেছে, তখন তারা থমকে দাঁড়িয়েছে। দেশের ভাবমূর্তি তারা ধ্বংস করেছে।
তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়েছিলেন, প্রতিটি মানুষ পেট ভরে ভাত খাবে। সুশিক্ষায় শিক্ষিত হবে। একটি মানুষও না খেয়ে থাকবে না। আমরা সেই স্বপ্ন পূরণে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের হতদরিদ্র মানুষের জন্য খাদ্যশস্যর ব্যবস্থা করি। আমরা বিভিন্নভাবে এই দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি।
গণসংযোগ ও পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আসিফ-উদ-দৌলা অলোক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারন সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ সালেহ আহমেদ মিন্টু, অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, কোষাধক্ষ আলহাজ ওয়াহিদুজ্জামান ওহিদ, শার্শা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাওছার আলী, সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক আলহাজ মোরাদ হোসেন, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী গগন, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান সোহারাব হোসেন, ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, বাস্তহারালীগের সভাপতি আবুল হোসেন প্রমুখ।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে যশোর-১ (শার্শা) আসনে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট মনোনীত প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দীন এমপি নৌকা প্রতীকের ভোট প্রার্থনা করে নির্বাচনী পথসভায় এ কথা বলেন।

Previous articleশান্তি ও স্বস্তি দিয়েছেন শেখ হাসিনা : কাজী নাবিল আহমেদ
Next articleশার্শায় মাদক সন্ত্রাস নির্মুল করার প্রত্যয় : তৃপ্তি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here