শহরে ভৈরব নদের পাড় সৌন্দর্য বর্ধনে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ

705

 

গত ২৮ মার্চ ভৈরব নদের যশোর শহরাংশে শতাধিক দলকারীকে উচ্ছেদ করে জেলা প্রশাসন

কল্যাণ রিপোর্ট : ভৈরব নদের যশোর শহরাংশে সৌন্দর্য বর্ধনে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। কাজটি বাস্তবায়ন করবে এলজিইডি। এতে ভৈরব নদের দু’পাশে ওয়াকওয়ে, বসার স্থান ও বিভিন্ন ধরনের গাছ রোপন করা হবে।
গত ২৮ মার্চ ভৈরব নদের যশোর শহরাংশে শতাধিক দলকারীকে উচ্ছেদ করে জেলা প্রশাসন। ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক) ২৭২ কোটি ৮২ লাখ ৫৪ হাজার টাকা ব্যয়ে ‘ভৈরব রিভার বেসিন এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ ও টেকসই পানি ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন প্রকল্প’ অনুমোদন দেয়। এই প্রকল্পের আওতায় যশোরের চৌগাছা উপজেলার তাহেরপুর থেকে নওয়াপাড়ার আফরাঘাট পর্যন্ত ৯৬ কিলোমিটার ভৈরব নদ খনন প্রকল্প গ্রহন করে।
কিন্তু যশোর শহর এলাকায় নদ দখল করে গড়ে তোলা হয়েছিল বড় বড় স্থাপনা। ব্যবসা, বাণিজ্য, হাসপাতাল ক্লিনিকের ব্যবসা চলে রমরমা। নদের জমি নানা কায়দায় দখল করে মাছ চাষ শুরু করে প্রভাবশালী মহল। ইতিমধ্যে শহরের একাংশের শতাধিক অবৈধ স্থাপনা ২৮ মার্চ উচ্ছেদ করে জেলা প্রশাসন। কিন্তু অপর অংশে এখনও অভিযান চালানো হয়নি।
উচ্ছেদ হওয়া যশোর শহর এলাকায় নদের দুই পাড়ের ১০ কিলোমিটার হাটার রাস্তা নির্মাণ এবং সৌন্দয্যবর্ধন করার দাবি ছিল ভৈরব নদ বাঁচাও আন্দোলনকারী ও সুধিমহলের।
গতকাল সরকার ভৈরব নদের দু’পাশে সৌন্দয্যবর্ধনের জন্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাড, স্বপন ভট্ট্রাচার্য্য।
এব্যাপারে এলজিইডি যশোর অফিসের সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মো: মুনসুর আলী জানান, ভৈরব নদের শহর অংশে হাটা ও বসার জায়গা এবং সৌন্দয্যবর্ধন করা হবে। ইতিমধ্যে আমাদেরকে সরকার টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। বিশেষঙ্গ দল বর্তমানে যশোরে অবস্থান করছে। শিগগিরই এটি বাস্তবায়ন করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here