পরিচ্ছন্নতা ও সেবার মান নিয়ে চরম ক্ষোভকপিলমুনি হাসপাতাল আকস্মিক পরিদর্শনে : এমপি বাবু

174

খায়রুল ইসলাম, (পাইকগাছা) প্রতিনিধি : বৈশাখের খরতাপ ও পবিত্র মাহে রমজানে যখন চরম ক্লান্তিময় দিনযাপন করছে সব মানুষ, ঠিক তখনই থেমে নেই মানব কল্যানে নিবেদিত পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু।
শনিবার সকালে নিজের আরাম-আয়েশকে উপেক্ষা করে নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন ও এলাকার মানুষের সেবার প্রত্যয় নিয়ে ছুটে গেলেন তার নির্বাচনী এলাকার প্রবেশদ্বার পাইকগাছা উপজেলা কপিলমুনি ১০ শয্যা হাসপাতালটি আকস্মিক পরিদর্শনে। সরকারি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান এলাকার মানুষকে কতটা সেবা দিচ্ছেন তা নিজের চোখে দেখার জন্য এ আকস্মিক পরিদর্শন। পরিদর্শন শেষে তিনি সেবা ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে কোন মেডিকেল অফিসারকে কর্মস্থলে পাননি, সবচেয়ে পরিতাপের বিষয় ১০ শয্যা হাসপাতালে সেবার মান এতটাই নিন্মগামী যে হাসপাতালের প্রায় সব আসন গুলোই রোগী ছাড়াই ফাঁকা পড়ে রয়েছে।
রমজান মানেই অতিরিক্ত ইবাদত ও ফজিলতের মাস। সারাদিন রোজা রাখার পর তারাবীর পর ক্লান্তি শেষে ঘুমিয়ে যেতে না যেতেই আবারও শেষ রাতে উঠতে হয় সাহরীর জন্য। সারাদিন রোজা আর প্রচন্ড গরমের মাঝে সবাই যখন ক্লান্ত, সাহরীর পর সকালের নির্মল পরিবেশে অনেকে যখন ক্লান্তি দূর করতে বিশ্রামে ব্যস্ত, ঠিক এমনি সময়ে তিনি ছুটে চলেছেন মানুষের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করেনিতে। সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবেলায় এলাকার মানুষের সাথে নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন। এরপর ত্রাণ সহায়তা প্রদান সহ বিভিন্ন কাজে ব্যসবত সময় পার করেছেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু।
সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু এ প্রতিনিধিকে বলেছেন, এভাবে একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানের সেবা কার্যক্রম চলতে পারে না। পরিদর্শন শেষে তিনি হাসপাতালে কর্মরত সহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে কর্মক্ষেত্রে আরো বেশি দায়িত্বশীল হওয়ার কথা বলেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এএসএম মারুফ হাসান জানান, এমপি মহোদয় সকালে ফোন করে বিষয়গুলো আমাকে বলেছে, মূলত কপিলমুনি ১০ শয্যা হাসপাতালে ২টি পদের বিপরীতে ১জন ডাক্তার কর্মরত রয়েছে। জরুরী বিভাগের জন্য আলাদা কোন ডাক্তার নাই। যার ফলে নিয়মনুযায়ী সকাল ৯টার সময় ডাক্তারের উপস্থিতি থাকার কথা। কিন্তু এমপি মহোদয় সকাল ৮টার দিকে যখন গিয়েছিলেন তখন ডাক্তারকে পাননি। সেবার মান বৃদ্ধি সহ পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার যে বিষয়গুলো বলেছেন সে সব বিষয়গুলো খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প প কর্মকর্তা জানান।

LEAVE A REPLY