ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা, ভাংচুর, পুলিশ আহত

2051

কল্যাণ রিপোর্ট : মাছের খামারে ‘আড্ডা দিতে নিষেধ করায়’ এক যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে একদল যুবক।
গতকাল বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার ভাতুড়িয়া গ্রামের একটি মাছের খামারে এই ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
নিহত ইমরোজ হোসেন (২৮) ভাতুড়িয়া গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে।
এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা ভাংচুর করা হয়েছে। আহত হয়েছেন পুলিশ অফিসারসহ তিন চারজন।
নিহতের বাবা নূর ইসলাম বলেন, দুপুর দেড়টার দিকে এলাকার আলী, রিংকু, আশিক, স্বাধীন ও মোস্ত একটি মেয়েকে নিয়ে ইমরোজের খামারে যায়। এ সময় ইমরোজ তাদের সেখান থেকে বেরিয়ে যেতে বললে দুপক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়।
“এক পর্যায়ে আশিক পিস্তল বের করে ইমরোজকে গুলি করে পালিয়ে যায়।”
পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর পৌনে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে নূর ইসলাম বলেন।
যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মনিরুজ্জামান বলেন, “ইমরোজের বুকের বামপাশে গুলি লেগেছে। অপারেশন থিয়েটারে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়েছে।”
যশোর কোতোয়ালি থানার ইনসপেক্টর সমীর সরকার বলেন, গুলিবিদ্ধ ইমরোজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। কী কারণে এবং কারা তাকে হত্যা করেছে-বিষয়টি উদ্ঘাটন এবং দোষীদের আটকে কাজ করছে পুলিশ।
এদিকে, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইমরোজ মারা গেছেন-এমন সংবাদে তার লোকজন প্রতিপক্ষ পান্নুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। ঠেকাতে গিয়ে আহত হন চাঁচড়া ফাঁড়িতে কর্মরত এটিএসআই আনোয়ারুল, স্থানীয় বাসিন্দা আনিসুর রহমান (৫৫)সহ তিন-চারজন। তাদের মধ্যে উল্লিখিত দুজনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here