ছাত্রদলের কমিটির কার্যক্রমে আদালতের স্থগিতাদেশ

103

কল্যাণ ডেস্ক : নবনির্বাচিত ছাত্রদলের নতুন কমিটির সব কার্যক্রমে অন্তবর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন শ্যামলকে আগামী সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ঢাকার চতুর্থ সহকারী জজ নুসরাত সাহারা বীথি এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদন করেছিলেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আমান উল্লাহ।
সংশ্লিষ্ট আদালতের সেরেস্তাদার আব্দুর রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে, এই একই আদালতে ছাত্রদলের কাউন্সিল স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছিলেন আমান উল্লাহ। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কাউন্সিলের একদিন আগে, ১২ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কাউন্সিল অনুষ্ঠানে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেন একই বিচারক। ১৪ সেপ্টেম্বর ওই কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।
আদালতের নিষেধাজ্ঞায় ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে এ নিষেধাজ্ঞার নিষ্পত্তি না করেই গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বাসায় ওই কাউন্সিল আয়োজন করা হয়। ৫৬৬ জন কাউন্সিলরের মধ্যে ৫৩৩ জন ওই কাউন্সিলে উপস্থিত ছিলেন। তাদের মধ্যে ৪৮১ জন ভোট দেন। তাদের ভোটে সভাপতি নির্বাচিত হন মো. ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন মো. ইকবাল হোসেন শ্যামল।
এরই মধ্যে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত এই কমিটি দায়িত্বও গ্রহণ করেছে। ২১ সেপ্টেম্বর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

পরদিন ২২ সেপ্টেম্বর নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে হাজির হন খোকন ও শ্যামল। সেখানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন। এসময় তারা নিজ নিজ সংগঠনের পক্ষে পাল্টাপাল্টি শ্লোগান দেন। সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলাও করেছেন।

Previous articleরাজনীতির নামে লুটপাট : অভিযান আরো জোরদার করুন
Next articleঅ্যাকশনে শেখ হাসিনা : এরপরে কে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here