বাবর-মাসুদের সেঞ্চুরিতে বিপদে বাংলাদেশ

45

ক্রীড়া ডস্কে : সম্ভাবনাময় জুটি ও ইনিংস বড় না করার আক্ষেপ পোড়াচ্ছে বাংলাদেশকে। আর কিভাবে সম্ভাবনাকে পূর্ণতা দিতে হয়, সফরকারীদের তা-ই যেন দেখাচ্ছে পাকিস্তান। দুই ব্যাটসম্যান করেছেন সেঞ্চুরি। নব্বই ছাড়িয়েছে তিনটি জুটি। দুই দিনেই রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে চালকের আসনে বসেছে আজহার আলির দল।

৩ উইকেটে ৩৪২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে পাকিস্তান। আগের সেরা ১২৭ ছাড়িয়ে ১৪৩ রানে ব্যাট করছেন বাবর আজম। তার সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন চতুর্থ উইকেটে ১৩৭ রানের জুটি গড়া আসাদ শফিক ব্যাট করছেন ৬০ রানে।

দিনের শেষটা বাংলাদেশের জন্য হতাশায় মোড়া। তবে শুরুটা হয়েছিল আশা দিয়ে। দ্বিতীয় ওভারেই আবিদ আলিকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন আবু জায়েদ চৌধুরী। আগের দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা ওপেনার খুলতে পারেননি রানের খাতা।

ইবাদত হোসেন ঘণ্টা প্রতি প্রায় ১৪৫ কিলোমিটার গতিতে বল করছিলেন। আবু জায়েদের ছোট ছোট সুইং ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা নিচ্ছিল। দ্বিতীয় ঘণ্টার শুরু থেকে বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে দ্রুত এগিয়ে যায় পাকিস্তান।

এক প্রান্তে টানা বোলিং করে গেছেন তাইজুল ইসলাম। আরেক প্রান্তে চাপ ধরে রাখতে পারেননি পেসাররা। আজহার আলিকে বিদায় করে ৯১ রানের জুটি ভাঙেন আবু জায়েদ।

শুরুতে একটা সুযোগ দিয়েছিলেন বাবর। একের পর এক ডট খেলা মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান চাপ সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন বড় শটে। তাইজুলের বলে মিড অফে কিছুটা সরে গিয়ে ক্যাচ মুঠোয় জমাতে পারেননি ইবাদত। এর মাশুল দিচ্ছে বাংলাদেশ।

বিস্ময় জাগিয়ে দলে আসা রুবেল হোসেন ঢুকে গেছেন একাদশে। একটু খরুচে বোলিং করলেও তিনি তৈরি করেছিলেন একটি সুযোগ। ব্যক্তিগত ৮৬ রানে স্টাম্পের বেশ বাইরের বল তাড়ায় কিপারকে ক্যাচ দেন মাসুদ। কিন্তু সফরকারীদের কেউ বুঝতেই পারেননি ব্যাটের কানা ছুঁয়ে এসেছে বল!

ছবি: পাকিস্তান ক্রিকেটছবি: পাকিস্তান ক্রিকেটক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি ছোঁয়ার পর অবশ্য বেশিক্ষণ টিকেননি মাসুদ। দারুণ এক ডেলিভারিতে তাকে বোল্ড করেন তাইজুল। ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে ৫৪ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করা মাসুদ ১১ চারে ১৬০ বলে ফিরেন ১০০ রানে। ভাঙে ১১২ রানের জুটি।
সেটাই দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশের শেষ সাফল্য। তৃতীয় সেশন কোনো ক্ষতি ছাড়াই কাটিয়ে দেন বাবর ও শফিক। জীবন পাওয়ার পর থেকে দারুণ খেলছেন বাবর। শুরু থেকে আস্থার সঙ্গে তাকে সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছেন শফিক।

বোলারদের চেষ্টার কমতি ছিল না। ফিল্ডারদের কাছে আরেকটু বেশি সহযোগিতা পেলে চিত্রটা হয়তো অন্য রকম হতে পারতো। তবে তাদের দারুণ চেষ্টার পরও দ্বিতীয় দিন শেষে শতরানে এগিয়ে গেছে পাকিস্তান।

রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রোববার মুমিনুলের দলের সামনে অপেক্ষা আরেকটি লম্বা দিন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ২৩৩

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৮৭.৫ ওভারে ৩৪২/৩ (মাসুদ ১০০, আবিদ ০, আজহার ৩৪, বাবর ১৪৩*, শফিক ৬০*; ইবাদত ১৪.৫-২-৭৮-০, আবু জায়েদ ২০-২-৬৬-২, রুবেল ১৭-৩-৭৭-০, তাইজুল ৩৪-৫-১১১-১, মাহমুদউল্লাহ ২-০-৬-০)

LEAVE A REPLY