জীবননগর সীমান্তে বিজিবি-চোরাকারবারী বন্ধুকযুদ্ধে নিহত ১

0
66

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার নতুনপাড়া সীমান্তে বাংলাদেশ বডারগার্ড বিজিবি ও মাদক চোরাকারবারীদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মাদকব্যবসায়ী জসিম মন্ডল (৩৫) গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন । বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় হাসুয়ার কোপে দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন।
থানায় জীবননগর থানায় নতুনপাড়া বিওপির বিজিবির ক্যাম্প কমান্ডার নায়েব সুবেদার হামিদুল ইসলামের দায়ের করা মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের নতুনপাড়া বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে এলাকার কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী জসিম মন্ডলকে ২৩ বোতল ফেনসিডিলসহ সীমান্তের আল আমিনের আম বাগান থেকে আটক করেন। রাতে জিজ্ঞাসাবাদে আটক জসিম বিজিবিকে জানায়, রাত ১২ টার দিকে তার সহযোগিরা ভারত থেকে ফেনসিডিলের বড় একটা চালান নিয়ে আসবে। তার দেওয়া স্বীকারোক্তি মোতাবেক বিজিবি সদস্যরা রাত ১২ টার দিকে জসিমকে নিয়ে সদরপাড়া সীমান্তের ভড়ভড়িয়া মাঠের আব্দুর রহমানের আমবাগানে ওৎ পেতে থাকেন। পরে রাত ১টার পরে ঘটনাস্থল হতে ৩০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে। এ সময় মাদক চোরাকারবারীরা জসিমকে ছাড়িয়ে নিতে বিজিবির ওপর গুলিবর্ষণ করে। হামলাকালে হাসুয়ার কোপে ল্যাঃ নায়েক মহিউদ্দিন আহত হন। তাকে উদ্ধার করতে গেলে সিপাহী ডালিমও হাসুয়ার কোপে আহত হন। এ সময় বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে ৩ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। গোলাগুলি চলাকালে জসিম মন্ডল পালানোর চেষ্টা করলে চোরাচালানীদের গুলিতে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এসময় হামলাকারীরা পালিয়ে যায় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। খবর পেয়ে রাত ৩ টার দিকে জীবননগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জসিম মন্ডলের মৃতদেহসহ ৩০০ বোতল ফেনসিডিল, ১টি ওয়্যার কাটার, ১টি দা, ৩টি কাঁচি, ১টি হাসুয়া ও ১টি ছোরা উদ্ধার করে।
জীবননগর থানা অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মৃত জসিম মন্ডলের নামে জীবননগর থানায় ১ টি মাদক মামলা আছে। সে এলাকার চি‎হ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। মৃতদেহ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা মর্গে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যপারে বিজিবির পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে।
ঝিনাইদহের মহেশপুর-৫৮ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল কামরুল আহসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY