লকডাউনের মধ্যেই খাদ্যের দাবিতে রাস্তায় কয়েকশ’ নারী-পুরুষ-শিশু

117

 

কল্যাণ রিপোর্ট : লকডাউনের মধ্যেই খাদ্যের দাবিতে রাস্তায় নেমে এলেন কয়েকশ’ নারী-পুরুষ-শিশু। মঙ্গলবার সকালে যশোর-ঢাকা ভায়া মাগুরা মহাসড়কের দুই জায়গায় অবস্থান নেন তারা। কাজের অভাবে এরা না খেয়ে আছেন বলে অভিযোগ করেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, সকাল আটটার দিকে মহাসড়কটির বাহাদুরপুর বাজারে অবস্থান নেন ৩০-৪০ নারী। তাদের সঙ্গে ছিল শিশুরাও। কিন্তু দ্রুতই এই সংখ্যা শ’দুয়েক হয়ে যায়। যাদের বেশিরভাগই ছিলেন নারী।
একই সময়ে বাহাদুরপুর থেকে খানিকটা দূরে বাঁশতলা এলাকায় একই মহাসড়কের ওপরও শ’খানেক লোক অবস্থান নেন। এখানে বেশিরভাগ লোক ছিলেন পুরুষ।
দুই অবস্থান থেকেই খাদ্যের দাবি করা হতে থাকে। বাহাদুরপুর স্পটে অবস্থান নেওয়া কয়েকজনকে ত্রাণের দাবিতে স্লোগান দিতেও দেখা যায়।
রাস্তায় অবস্থান নেওয়া মানুষের অভিযোগ, এক মাসেরও বেশি সময় তারা ঘরবন্দি। কোনো কাজ-কর্ম নেই। অথচ তারা এখনো পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি কোনো সহায়তা পাননি। বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটছে তাদের।
বিশেষ করে নারীরা বলছিলেন, তারা প্রায় সবাই রোজা রয়েছেন। কিন্তু সেহরি-ইফতারি করার মতোও কিছু তাদের ঘরে নেই। বয়স্ক মানুষেরা দু’-একদিন না খেয়ে থাকতে পারে। কিন্তু বাচ্চারা তো না খেয়ে মারা যাবে!
বিক্ষোভ সংগঠিত করতে ভূমিকা রাখা স্থানীয় এক নারী বলছিলেন, নওয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে তারা খাদ্য সহায়তা চেয়েছিলেন। কিন্তু তাদের নিরাশ হতে হয়েছে। স্থানীয় ইউপি মেম্বারও জানিয়ে দিয়েছেন, তার কাছে যে ত্রাণ এসেছিল, তা বণ্টন করা হয়ে গেছে। উপায়ান্তর না পেয়ে তারা রাস্তায় নামেন বলে দাবি করেন।


খবর পেয়ে বিক্ষোভস্থলে হাজির হন সেনা ও পুলিশ সদস্যরা। যান রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) কেএম আবু নওশাদও। তারা রাস্তায় অবস্থান নেওয়া নারী-পুরুষের কথা মনোযোগ দিয়ে শোনেন।
একপর্যায়ে আরডিসি কে এম আবু নওশাদ মাইকে ঘোষণা দেন, দ্রুতই তাদের তালিকা তৈরি করে খাদ্য সহায়তার উদ্যোগ নেওয়া হবে। এই বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।
ম্যাজিস্ট্রেট, সেনা ও পুলিশ কর্মকর্তাদের বক্তব্যে আশ্বস্ত হয়ে প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে দশটার দিকে লোকেরা মহাসড়ক ছেড়ে দেন। এরপর শুরু হয় ওই রাস্তায় যান চলাচল। এর আগে লোকজন মহাসড়কের ওপর বসে পড়লে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। যদিও সরকারি নিষেধাজ্ঞার কারণে যাত্রীবাহী কোনো যান রাস্তায় নেই।

Previous articleযশোরে আরও ১০ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত
Next articleঅধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী আর নেই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here