ডাক্তারের কথা শুনেই এন্ড্রু কিশোর বলেন ‘দেশের মাটিতে মরতে চাই’

0
25

বিনোদন ডেস্ক : চলে গেলেন বাংলা গানের অন্যতম কিংবদন্তি শিল্পি এন্ড্রু কিশোর। সোমবার ৬টা ৫৫ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে দেশ ছেড়েছিলেন। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর তাঁর শরীরে নন-হজকিন লিম্ফোমা নামের ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে। এরপরেই তিনি দেশে ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন। তার ইচ্ছা ছিল দেশের মাটিতে শেষ বিদায় নেওয়ার। কিংবদন্তি শিল্পীর সেই ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।
এন্ড্রু কিশোরের জীবনসঙ্গী লিপিকা এন্ড্রু শুনিয়েছেন তাঁর শেষ সময়ের কিছু কথা। ১০ জুন এন্ড্রু কিশোর ছিলেন সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে তার রিপোর্টের অপেক্ষায়। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক লিম সুন থাই লিপিকা এন্ড্রুকে ডেকে বলেন, লিম্ফোমা ব্যাক করেছে। ডাক্তার বললেন, এন্ড্রুকে বলব? লিপিকা এন্ড্রু তাতে সম্মতি দেন। জানতে চান পরবর্তী কার্যক্রম সম্পর্কে। ডাক্তার লিম মাথা নিচু করে বললেন,’ আমি দুঃখিত, আমার আর কিছু করার নেই।’
ডাক্তার লিম যখন এন্ড্রু কিশোরকে এই ভয়ংকর খবরটি দিচ্ছিলেন, তখন পাশে দাঁড়িয়ে অঝোরে কাঁদছিলেন লিপিকা। কিন্তু সব শুনেও খুব স্বাভাবিক ছিলেন এন্ড্রু কিশোর। খবরটি শোনার সাথে সাথে তিনি ডাক্তারকে বলেন, ‘ তুমি আজই আমাকে রিলিজ করো, আমি আমার দেশে মরতে চাই, এখানে না। আমি কাল দেশে ফিরব।’ এরপর তিনি নিজেই বাংলাদেশ দূতাবাসে ফোন করে পরদিনই তাদের দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা করতে বলেন। তিনি বলছিলেন, ‘কালই আমার ফেরার ব্যবস্থা করে দিন। আমি মরে গেলে আপনাদের বেশি ঝামেলা হবে, জীবিত অবস্থায় পাঠাতে সহজ হবে।’
অতঃপর ১১ জুন রাতে দেশের মাটিতে ফিরে আসেন এই বিখ্যাত শিল্পী। দীর্ঘ ১০ মাস ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে তিনি হেরে গেলেন। সোমবার রাজশাহীতে বোনের বাড়িতে সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই অসামান্য শিল্পী। বাংলাদেশের গানের জগতে এন্ড্রু কিশোরের তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তা ছিল। তার অসংখ্য গান এখনও মানুষের মুখে মুখে ফিরে। এই মানুষটিকে এভাবে হারিয়ে জাতি আজ শোকাহত। সোশ্যাল সাইটে সবাই এই বিখ্যাত শিল্পীকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন।

LEAVE A REPLY