করোনায় ঝরে গেলো ৩০০০ প্রাণ

0
10

কল্যাণ ডেস্ক : গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো তিন হাজার জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯৬০ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট করোনা পজিটিভ শনাক্ত হলেন দুই লাখ ২৯ হাজার ১৮৫ জন।
মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) দুপুর আড়াইটায় কোভিড-১৯ সম্পর্কিত নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে এই তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।
দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ, করোনায় প্রথম মৃত্যু ১৮ মার্চ। সংক্রমণের ১৪৩তম দিনে মৃত্যু তিন হাজারে পৌঁছালো। অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮১টি পরীক্ষাগারে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৩ হাজার ৭০টি। নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১২ হাজার ৭১৪টি। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ২৮ শতাংশ। এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ১৫ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩১ শতাংশ।
২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৭৩১ জন, মোট সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ২৭ হাজার ৪১৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৩৫ জনের মধ্যে পুরুষ ২৬ জন আর নারী ৯ জন। হাসপাতালে মারা গেছেন ২৬ জন, বাড়িতে মারা গেছেন আট জন, আর হাসপাতালে মৃত অবস্থায় এসেছেন একজন। এখন পর্যন্ত পুরুষ মোট মারা গেছেন দুই হাজার ৩৫৮ জন, শতাংশের হিসেবে ৭৮ দশমিক ৬০। আর নারী ৬৪২ জন, শতাংশের হিসেবে ২১ দশমিক ৪০।
মারা যাওয়াদের মধ্যে বয়স বিভাজনে ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুই জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে তিন জন আর ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে মারা গেছেন চার জন।
মৃত তিন হাজার জনের মধ্যে বয়স বিভাজনে দেখা গেছে, শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে ১৮ জন, যা মোট মৃত্যুর দশমিক ৬০ শতাংশ; ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ৩০ জন, এক দশমিক শূন্য শতাংশ; ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ৮৪ জন, দুই দশমিক ৮০ শতাংশ; ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২০০ জন, ছয় দশমিক ৬৭ শতাংশ; ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪২৫ জন, ১৪ দশমিক ১৭ শতাংশ; ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৮৬৯ জন, ২৮ দশমিক ৯৭ শতাংশ এবং ষাটোর্ধ্ব এক হাজার ৩৭৪ জন, ৪৫ দশমিক ৮০ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে পাঁচ জন, খুলনা ও সিলেট বিভাগে চার জন করে, বরিশাল ও রাজশাহী বিভাগে তিন জন করে, ময়মনসিংহ ও রংপুর বিভাগে দুই জন করে মারা গেছেন।
এ পর্যন্ত বিভাগ অনুযায়ী মারা গেছেন ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৪৪৪ জন, ৪৮ দশমিক ১৩ শতাংশ; চট্টগ্রাম বিভাগে ৭৩১ জন, ২৪ দশমিক ৩৭ শতাংশ; রাজশাহী বিভাগে ১৭৭ জন, পাঁচ দশমিক ৯০ শতাংশ; খুলনা বিভাগে ২১২ জন, সাত দশমিক ০৭ শতাংশ; বরিশাল বিভাগে ১১৫ জন, তিন দশমিক ৮৩ শতাংশ; সিলেট ১৪৪ জন, চার দশমিক ৮০ শতাংশ; রংপুর বিভাগে ১১৩ জন, তিন দশমিক ৭৭ শতাংশ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ৬৪ জন, দুই দশমিক ১৩ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ৭১৩ জন, ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৭৩২ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছেন ৪৮ হাজার ৪৮৯ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ২৯ হাজার ৫০১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৯৮৮ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন এক হাজার ৯৯২ জন। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছেন চার লাখ ২৯ হাজার ৯৮৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ৫২৩ জন। এ পর্যন্ত ছাড় পেয়েছেন তিন লাখ ৭২ হাজার ১৩০ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫৭ হাজার ৮৫৯ জন।

LEAVE A REPLY