এরদোয়ানের অশ্লীল কার্টুন ছাপল ‘শার্লি এবদো’

34

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের আপত্তিকর কার্টুন প্রকাশ করেছে ফ্রান্সের বিতর্কিত ব্যাঙ্গাত্মক ম্যাগাজিন ‘শার্লি এবদো’। এ ঘটনায় কঠোর নিন্দা জানিয়েছে আঙ্কারা। বুধবার ২৮ অক্টোবর ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে এরদোয়ানের অশ্লীল কার্টুন ছাপানো হয়। তুরস্ক বলছে, এটি সাংস্কৃতিক বর্ণবাদ এবং বিদ্বেষ ছড়ানোর ঘৃণ্য প্রচেষ্টা।
তুরস্কের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইব্রাহীম কালিন টুইটারে জানান, ফরাসি ম্যাগাজিনে আমাদের প্রেসিডেন্টকে জড়িয়ে যে চিত্র প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে কোন বিশ্বাস, পবিত্রতা এবং মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধা নেই, আমরা এর কঠোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের অপমানজনক কার্টুন প্রকাশ করায় এর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তুর্কি ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওকতাই। বলেন, ‘বাক স্বাধীনতার নামে একজন মুসলিম শাসকের বিরুদ্ধে এমন ঔদ্ধত্য আচরণ কখনোই মেনে নেয়া যায় না।’
দেশটির যোগাযোগ পরিচালক ফাহেরেতিন আলতুনের অভিযোগ, ফরাসি সরকারের প্ররোচনায় এই ম্যাগাজিনটি নোংরা খেলায় আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলে।
তিনি বলেন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর ইসলামবিরোধী এজেন্ডা সম্পূর্ণ ‘ভুয়া’। শার্লি এবদো প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের বিরুদ্ধে তথাকথিত, বানোয়াট কার্টুন ছবি প্রকাশ করেছে। এমন জঘন্য ঘটনার নিন্দা জানাই।
এর আগে, এরদোয়ানের বিরুদ্ধে অপমানজনক কার্টুন প্রকাশ ডানপন্থী ডাচ রাজনীতিবিদ গির্ট ওয়াইল্ডার্স।
সম্প্রতি মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর বিতর্কিত কার্টুন প্রকাশ করেছিল শার্লি এবদো। এর প্রতিবাদে মুসলিম বিশ্ব ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ডাক দেয়। প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায় ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোর বিরুদ্ধে।
এদিকে, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশকারী ফ্রান্সের ম্যাগাজিন ‘শার্লি এবদো’র ওয়েবসাইটে সাইবার হামলা চালিয়ে ডাউন করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশি হ্যাকাররা। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাত সাড়ে নয়টার দিকে কয়েক হাজার সাইবার বিশেষজ্ঞ শার্লি এবদো’র ওয়েবসাইটে হামলা শুরু করে। এক ঘণ্টারও বেশি সময় চেষ্টায় পর রাত ১১টার দিকে তাদের ওয়েবসাইট ডাউন হয়।

Previous articleচলচ্চিত্রে ইরফান পাঠান, প্রথম লুকেই চমকে দিলেন
Next articleবাবার ‘রাজ্যে’ ইরফান ছিলেন একমাত্র ‘সম্রাট’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here