ঘুমন্ত বাবা-মায়ের পাশ থেকে উধাও শিশুটির লাশ মিলল পুকুরে

0
32


বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ঘুমন্ত বাবা-মায়ের পাশ থেকে উধাও হয়ে যাওয়া ১৭ দিনের সেই শিশুটির লাশ তিন দিন পর বাড়ির পাশের পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। নবজাতক সোহানাকে চুরি ও হত্যার ঘটনায় শিশুটির বাবা সুজন খানসহ তিনজনকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে
বুধবার ভোরে বাড়ির পাশের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা লাশ ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে।
ঘটনার দিন রোববার রাত ১১টার দিকে মোরেলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গাবতলা গ্রামের জেলে সুজন খান ও তার স্ত্রী শান্তা আক্তার তাদের ১৭ দিন বয়সী শিশু মেয়ে সোহানাকে তাদের দু’জনের মাঝখানে শুইয়ে রেখে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আনুমানিক ২ টার দিকে তারা জেগে দেখেন তাদের শিশু মেয়ে বিছানায় নেই। তার বালিশটি খাটের নীচে পড়ে ছিল এবং ঘরের দরজা খোলা ছিল।
এ ঘটনায় অজ্ঞাত আসামি করে চুরি হয়ে যাওয়া শিশু সোহানার দাদা আলী হোসেন খান বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
প্রতিবেশীদের সাথে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ ও পারিবারিক কলহের কারণে ১৭ দিনের শিশু সোহানা চুরি হয়ে থাকতে পারে বলে শিশুটির বাবা সুজন খান দাবি করেছেন।
এদিকে, বাগেহাটের মোরেলগঞ্জে ঘুমন্ত মা-বাবার পাশ থেকে নবজাতক সোহানাকে চুরি ও হত্যার ঘটনায় শিশুটির বাবা সুজন খানসহ তিনজনকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
বুধবার বিকেলে পুলিশ তাদের মোরেলগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে।
জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা অন্য দু’জন হলেন- সুজনের ছোট ভাই রিপন খান (২৫) ও ভগ্নিপতি হাসিব শেখ (৩০)।
এদিকে মরদেহ উদ্ধারের পর পুলিশের পাশাপাশি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ও অপরাধ তদন্ত বিভাগ বা ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্টের (সিআইডি) পৃথক দু’টি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এখনো ঘটনাস্থলে পুলিশের একাধিক টিম রয়েছে।
আমার মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে তুলে নিয়ে হত্যা করে পুকুরে ফেলে রাখা হয়েছে বলে দাবি করেছেন শিশুটির মা শান্তা আক্তার।
মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমরা তিনজনকে থানায় নিয়ে এসেছি। থানায় রেখে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY