ওরা শুধু রাত জাগে

17

বেবি নাসরিন
হেমন্তের পৃবালি হাওয়ায় তির তির করে বয়ে যাচ্ছে চন্দ্রমল্লিকার গন্ধ।
অন্ধকারে টিমটিম করে জ্বলছে তারাদের বেনামি আলো।
ইষ্টেশনের লোহার রেলিংএর পাশে কিংবা কোনো গাছের তলে।
যেখানে ঝুমকো লতার ফুলগুলো ফুটেছে অবহেলায়।
সেখানে ওরা শুধু রাত জেগে বসে থাকে পথের কিনারায়।
রাত শুধু অভিমান করে ওরা তন্দ্রা বিহিন থাকে বলে।
হিমের পরশে উত্তরা বাতাসে ওদের হিৎস্পন্দন ঠাই দাড়িয়ে থাকে বুক পিঞ্জরে।
টুপটাপ শব্দে শিশির ঝরে পাতায় পাতায় ফুলে ফুলে।
তবু ওরা শুধু রাত জেগে বসে থাকে রাতের কিনারায়।
দুর থেকে শোনা যায় কোনো এক পথোশিশুর জমাট বাধা কান্নার রোল।
মায়ের অস্ফুট গানে তার চোখে ঘুম ঘুম শিত।
শিশুটির কর্নকুহুরে যেন পৌছায়না লহরির কোনো সুর।
তবু অবসাদে ঢাকা ইমোন কল্যানের মনোবীনের সুর গাথা।
তবু ওরা শুধু রাত জেগে বসে থাকে দিনান্তের কিনারে।
কত নিশি গেছে চলে ওদের বিনা বস্ত্রে কেবলি রজনিগন্ধা সাক্ষি।
ওরা শুধু জোৎস্নাকে আলিঙ্গন করে কম্পিত নয়নে।
ক্ষনে ক্ষনে ডাহুকিনি ডেকে ওঠে বিষাদ সুরে।
গভীর রাতের ট্রেনটি ছুলে চলে হুইসেল বাজিয়ে নিজ গন্তব্যস্থলে।
তবু ওরা শুধু রাত জাগে জোৎস্নার কিনারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here