‘যোদ্ধা’ ওয়ার্নারের সম্ভাবনা উজ্জ্বল

14

ক্রীড়া ডেস্ক : ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে জল্পনার সমাপ্তি আপাতত ধরে নেওয়াই যায়। জাস্টিন ল্যাঙ্গার স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন, শতভাগ ফিট না হলেও সিডনি টেস্টে খেলবেন অভিজ্ঞ এই ওপেনার। খেলার মতো ফিট হয়ে উঠতে লড়াকু মানসিকতার এই ব্যাটসম্যান সম্ভব সব কিছু করছেন বলেও জানালেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ।
ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়ার পর থেকেই বাইরে ওয়ার্নার। কুঁচকির সেই চোট থেকে তিনি পুরোপুরি সেরে ওঠেননি এখনও। তবে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফির প্রথম দুই টেস্টে ব্যাটসম্যানদের বাজে পারফরম্যান্সের পর তৃতীয় টেস্টে দলের সেরা ওপেনারকে একাদশে পেতে মরিয়া অস্ট্রেলিয়া।
কোচ ল্যাঙ্গার মঙ্গলবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বললেন, বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া টেস্টে ওয়ার্নারের খেলার সম্ভাবনা প্রবল।
“খুবই আশাবাদী যে তৃতীয় টেস্টের জন্য ডেভিড প্রস্তুত হয়ে উঠবে। সে একজন যোদ্ধা, তাই না? প্রথম দিন থেকেই আমি বলে আসছি, তৃতীয় টেস্টের জন্য তৈরি হয়ে উঠতে সম্ভব সবকিছুই সে করছে। মনে হচ্ছে, সে খুবই ভালোভাবে নড়াচড়া করতে পারছে। এই টেস্টে খেলতে সে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। সে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ভালোবাসে, টেস্ট ক্রিকেট খেলতে পছন্দ করে।”
“আজকে বিকেলে অনুশীলনে তাকে আমরা শেষবারের মতো পরখ করে দেখব এবং তার পর আলোচনা করব। তবে যতদূর মনে হচ্ছে, তৃতীয় টেস্টে সে খেলবে।”
শতভাগ ফিট ওয়ার্নারকে অবশ্য নিশ্চিতভাবেই পাওয়া যাবে না এই টেস্টে। তবে ল্যাঙ্গারের দাবি, পুরো ফিট না হলেও ওয়ার্নারকে খেলিয়ে দেওয়ায় ঝুঁকি খুব বেশি নেই।
“কিছুটা ব্যথা নিয়েই তাকে খেলতে হবে এবং এটা সব ক্রিকেটারের ক্ষেত্রেই হয়। অনেক সময়ই তাদের ব্যথা সয়ে খেলতে হয়। এইটুকু নিতে সে তৈরি এবং আশা করি তা খুব বেশি সমস্যা সৃষ্টি করবে না।”
“যদি আমরা মনে করতাম ওকে খেলানোয় বড় কোনো ঝুঁকি আছে, তাহলে অবশ্যই সেই পথে আমরা হাঁটতাম না। তার পুনর্বাসন খুব ভালো হয়েছে। গ্রেফ মাঠে চলাফেরা একটু সীমাবদ্ধ থাকতে পারে। অনেক দিন পর টেস্ট খেলতে হবে বলে একটু শ্রান্তিও পেয়ে বসতে পারে। কিন্তু তার চোট বাড়া বা ফেরার সম্ভাবনা যদি থাকত, অবশ্যই আমরা ঝুঁকি নিতাম না।”
ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে সমস্যা খুব বেশি হবে না, ওয়ার্নার বলেছিলেন আগেই। প্রশ্ন তার রানিং বিটুইন দা উইকেট আর ফিল্ডিং নিয়ে। ল্যাঙ্গার জানালেন, এটির সমাধানও বের করেছে দল।
“ডেভিডের ব্যাটিং নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না বলেই মনে করি। মাঠে তার বিচরণের ক্ষেত্রে একটু ভিন্নতা আনতে হবে। হয়তো তাকে স্লিপে ফিল্ডিং করতে হবে। আমার এখনও মনে আছে, ২০১৯ অ্যাশেজে লিডসে সে দারুণ কিছু ক্যাচ নিয়েছিল (স্লিপে)। সে এরকমই সহজাত এক প্রতিভা।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here