টেস্ট প্রস্তুতিতে নেমে গেছেন টাইগাররা

18

ক্রীড়া ডেস্ক : ব্যাটে-বলে দুর্বার পারফরম্যান্সে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের ওয়ানডে’র একটিতেও পা হড়কায়নি বাংলাদেশ। বরং প্রতিটি ম্যাচেই ধরা দিয়েছে দাপুটে জয়। ততে সফরকারি দলটি হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। অতিথিদের বিপক্ষে একই দাপট হয়তো টেস্টেও অব্যাহত রাখতে চাইছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তাইতো ওয়ানডে সিরিজ শেষের পরদিনই শিষ্যদের নিয়ে নেমে পড়লেন টেস্ট সিরিজের প্রস্তুতিতে। উদ্দেশ্য বুঝতে বাকি রইলো না, লাল বলেও ফিল সিমন্স শিষ্যদের উড়িয়ে দিতে চাইছেন।
মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদে চৌধুরী স্টেডিয়ামে টাইগারদের প্রস্তুতির শুরুটা হয়েছে বিকেল ২টায়। আগের দিন ওয়ানডে ম্যাচ থাকায় টেস্টের প্রথম দিনের অনুশীলনে ছিলেন না ওয়ানডে দলের কোনো সদস্য। যারা ছিলেন শুধুই টেস্ট স্কোয়াডের। তবে ব্যতিক্রম ছিলেন কেবল মোহাম্মদ মিঠুন। যেহেতু তিনি ওয়ানডে একাদশে ছিলেন না সেহেতু টেস্টে সেরা প্রস্তুতি নিতে বিন্দুমাত্র গড়িমসি দেখাননি।
টেন্ট স্পেশালিস্টদের মধ্যে অধিনায়ক মুমিনুল হক, সাদমান ইসলাম অনিক, সাইফ হাসান, ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি, আবু জায়েদ রাহি, এবাদত হোসেন, নাঈম হাসান ও সৈয়দ খালেদ আহমেদ নিবিড় অনুশীলনে নিজেদের শানিয়ে নিয়েছেন।
নেটে ব্যাট হাতে দিনের শুরুটা করেছেন তরুণ সাইফ হাসান ও অভিজ্ঞ মোহাম্মদ মিঠুন। দুই পেসার এবাদত হোসেন ও আবু জায়েদ রাহির বিরুদ্ধ প্রায় ৪৫ মিনিট ঘাম ঝরানো ব্যাটিং করেছেন এই দুই টাইগার সদস্য। অবশ্য পেসারদেরই নয়, নেট সেশনে স্পিনারদেরও মোকাবিলা করতে হয়েছে এই টাইগার ডুয়োকে। যদিও স্পিনারদের মধ্যে শুধুই নাঈম ছিলেন। তাইজুল ইসলাম ও মেহেদি হাসান মিরাজকে অনুশীলনে দেখা যায়নি। সাকিব আল হাসানও ছিলেন না, কারণ গত সোমবার তৃতীয় ওয়ানডেতে কুঁচকিতে টান পেয়ে চিকিৎসকদের ২৪ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে আছেন তিনি।
সাইফ ও মিঠুনের অনুশীলনে শেষ হতেই ব্যাট হাতে নেটে যোগ দিয়েছেন টেস্ট দলপতি মুমিনুল হক ও ওপেনার সাদমান ইসলাম অনিক। বাঁ-হাতের বৃদ্ধাঙুলের অস্ত্রোপচার হয়েছে বিধায় অনুশীলনে পেসারদের বিরুদ্ধে কিছুটা নড়বড়ে মনে হয়েছে মুমিনুল হককে। তবে স্পিনারদের নেটে নাঈমের বল বেশ স্বাচ্ছন্দেই খেলতে দেখা গেছে।
স্বাচ্ছন্দে মনে হয়নি সাদমান ইসলাম অনিককেও। শুরুতে এবাদত, রাহি’র বিরুদ্ধে বেশ কয়েকবারই তাকে পরাস্ত হতে দেখা গেছে। শেষ দিকে এসে অবশ্য নিজেকে শুধরে নিয়েছেন এই তরুণ টপ অর্ডার। এবং তাতে কোচের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।
মুমিনুল হককে অবশ্য এরপরেও নেটে দেখা গিয়েছে। বিকেল সাড়ে তিনট থেকে চারটা অবধি স্টেডিয়ামের প্রেসবক্স প্রান্তের নেটে ব্যাটিং কোচ জন লুইস ও ফিজিও জুলিয়ান ক্যালোফাতেকে মোকাবিলা করেছেন লাল সবুজের এই টেস্ট স্পেশালিস্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here