যশোর বোর্ডে জিপিএ-৫ বেড়েছে সাড়ে সাত হাজারের বেশি

17

কল্যাণ রিপোর্ট : করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে পরীক্ষা ছাড়াই এইচএসসির ফলাফল ঘোষিত হওয়ায় যশোর বোর্ডে জিপিএ-৫ প্রাপ্তি বেড়েছে সাড়ে সাত হাজারের বেশি। ২০১৯ সালের পরীক্ষায় ৫ হাজার ৩১২ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেলেও ২০২০ সালের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে এ সংখ্যা ১২ হাজার ৮৯২।
আর ঘোষণা অনুযায়ী পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশনকৃত ১ লাখ ২১ হাজার ৫২৮ জন পরীক্ষার্থীর সবাই উত্তীর্ণ হয়েছে। শনিবার দুপুরে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড ঘোষিত ফলাফলে এ চিত্র উঠে এসেছে।
যশোর শিক্ষাবোর্ড জানিয়েছে, কোভিড-১৯ জনিত বৈরী পরিস্থিতির কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক গঠিত ‘এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রণয়ন সংক্রান্ত পরামর্শক কমিটি’র সুপারিশ অনুসারে এবং বোর্ড কমিটির অনুমোদন সাপেক্ষে এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।
প্রকাশিত ফলাফল থেকে জানা যায়, ২০২০ সালে যশোর বোর্ড থেকে ১ লাখ ২১ হাজার ৫২৮ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছিল। করোনা ভাইরাসের কারণে পরীক্ষা গ্রহণ সম্ভব না হওয়ায় ঘোষণা অনুযায়ী এদের সবাইকে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।
উত্তীর্ণদের মধ্যে ছাত্র ৬১ হাজার ৭৬১ জন এবং ছাত্রী ৫৯ হাজার ৭৬৭ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৯২ জন।
২০১৯ সালে যশোর বোর্ড থেকে ১ লাখ ২৬ হাজার ২২৯ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছিল ৯৫ হাজার ৪৯৫ জন। উত্তীর্ণদের মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৪৪২ জন এবং ছাত্রী ৪৮ হাজার ৫৩ জন। পাসের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৬৫। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৫ হাজার ৩১২ জন। বহিষ্কৃত হয়েছিল ৬০ জন।
২০১৮ এই বোর্ড থেকে ১ লাখ ৯ হাজার ৬৯২ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয় ৬৬ হাজার ২৫৮ জন। উত্তীর্ণদের মধ্যে ছাত্র ছিল ৩১ হাজার ৬৫২ জন এবং ছাত্রী ৩৪ হাজার ৬০৬ জন। পাসের হার ৬০ দশমিক ৪০। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২ হাজার ৮৯ জন। বহিষ্কৃত হয়েছিল ৪৭ জন।
শিক্ষাবোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, উত্তীর্ণদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৯২২ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ৫ হাজার ৪১৪ জন এবং ছাত্রী ৪ হাজার ৫০৮ জন। মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হজার ২১৩ জন। এদের মধ্যে ছাত্রী ১ হাজার ৪৬৮ জন, ছাত্র ৭৪৫ জন।ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৫৭ জন। এদের মধ্যে ছাত্রী ৪৮৬ জন এবং ছাত্র ২৭১ জন।
এবারের ফলাফলের চিত্র তুলে ধরে যশোর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র জানান, করোনা মহামারির কারণে পরীক্ষা ছাড়াই ফলাফল তৈরি করা হয়েছে। সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের কারণে কেউ কেউ হয়তো এসএসসি, জেএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েও এবার জিপিএ-৫ বঞ্চিত হয়েছে। আবার কেউ কেউ আগে জিপিএ-৫ না পেলেও এবার তা অর্জন করেছে। তবে সবমিলিয়ে যশোর বোর্ডে জিপিএ-৫ অনেক বেড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here