উত্তরাখন্ডে ভয়াবহ তুষারধস, নিখোঁজ ১৫০

0
10

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ৮ বছর আগের কেদারনাথের ভয়াবহ স্মৃতি যেন আবার ফিরে এল। রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভয়াবহ তুষারধসের ঘটনা ঘটল ভারতের উত্তরাখন্ড রাজ্যে। ইতোমধ্যেই রাজ্যের চার জেলায় জারি করা হয়েছে জরুরি সতর্কতা। নিখোঁজ অন্তত দেড় শ মানুষ। আশঙ্কা, বেশ কয়েকজন হতাহত হয়েছেন। ধসের কারণে ভাঙন ধরেছে ধৌলিগঙ্গার বাঁধে। নদীর ধারে থাকা বহু ঘরবাড়ি ভেসে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ঋষিকেশ ও হরিদ্বার জেলায় জারি হয়েছে বন্যা সতর্কতা। ঘটনাস্থলে পৌঁছে গেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর উদ্ধারকারী দল।
চামোলি হিমবাহে ফাটলের কারণে এই ধস বলে মনে করা হচ্ছে। উত্তরাখন্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে জানিয়েছেন, প্রবল বৃষ্টি ও প্লাবনের ধাক্কায় চামোলির রেনি গ্রামে ঋষিগঙ্গা প্রকল্প ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। অলকানন্দায় নিচু এলাকাও জলে ভেসে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। আগাম সতর্কতা অবলম্বন করে ভাগীরথীর গতিপথ রুদ্ধ করা হয়েছে। সে জন্য খালি করে দেয়া হয়েছে শ্রীনগর ও ঋষিকেশ বাঁধ।
ইতিমধ্যেই ত্রাণ কমিশনার একটি নোটিশ জারি করে সমস্ত জেলাশাসককে বিপর্যয় সতর্কতার বিষয়ে জানিয়েছেন। সেই নোটিশে জানানো হয়েছে, নন্দাদেবী হিমবাহে ভাঙন ধরাতেই ধস নামে।
এদিকে ইতোমধ্যেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াতকে ফোন করে পরিস্থিতির খোঁজ নিয়েছেন। কথা বলেছেন আইটিবিপি ও এনডিআরএফের ডিজিদের সঙ্গে। বিপর্যয়ের কবলে পড়া মানুষদের যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধার করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অমিত শাহ জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, সম্ভাব্য সব রকম সাহায্য করা হচ্ছে দেবভূমিকে।

LEAVE A REPLY