সাতক্ষীরায় তীর্থস্থান পরিদর্শনে আসছেন নরেন্দ্র মোদি

17

এস এম মিজানুর রহমান, শ্যামনগর সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে আগামী ২৬ মার্চ অংশগ্রহণ করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পরদিন ২৭ মার্চ হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কয়েকটি তীর্থস্থান পরিদর্শনের কথা রয়েছে তার। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অগ্রবর্তী নিরাপত্তা দল বাংলাদেশের কয়েকটি তীর্থস্থান পরিদর্শন ও প্রাথমিকভাবে বাছাই করেছে। এসব তীর্থস্থানের মধ্যে রয়েছে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ঈশ্বরীপুর গ্রামের ‘যশোরেশ্বরী শক্তিপীঠ’।
সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক ডা. সুব্রত কুমার ঘোষ বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। পরদিন হিন্দু ধর্মামলম্বীর পাঁচটি তীর্থস্থান পরিভ্রমণের জন্য তিনি মনস্থির করেছেন। এরমধ্যে সাতক্ষীরার যশোরেশ্বরী শক্তিপীঠ অন্যতম। এছাড়া বরিশাল, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও সিলেটের তীর্থস্থানও রয়েছে। এখনো চূড়ান্ত হয়নি, তবে প্রাথমিকভাবে এগুলো বাছাই করা হয়।’
তিনি আরও বলেন, ‘উভয় দেশের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে। যেগুলো বাছাই করা হয়েছে; এরমধ্যে শ্যামনগরের যশোরেশ্বরী শক্তিপীঠ অন্যতম। কাল(৪ মার্চ) এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বাংলাদেশে আসবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।
তিনি জানান, তীর্থস্থান পরিভ্রমণের পরিকল্পনার বিষয়টি এখন দুই দেশের নিরাপত্তাকর্মীদের বিবেচনাধীন অবস্থায় রয়েছে। এরমধ্যে কোনটা কোনটা পরিদর্শনের তালিকায় থাকবে আর কোনটি বাদ পড়বে সেটি এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অগ্রবর্তী নিরাপত্তা দল ১ মার্চ যশোরেশ্বরী শক্তিপীঠ পরিদর্শন করেছে। আগামী ১৪-১৫ মার্চ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানা যাবে।
যশোরেশ্বরী শক্তিপীঠ তীর্থস্থানের ইতিহাস উল্লেখ করে ডা. সুব্রত কুমার ঘোষ বলেন, কথিত রয়েছে মা কালীকে ৫১ ভাগ করে ফেলেছিলেন মহাদেব। এর খ- যেখানে যেখানে পড়েছিল, সেই স্থানকে শক্তিপীঠ হিসেবে চিহ্নিত করা হয় ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কাছে তীর্থস্থানে রূপলাভ করে। উপমহাদেশের ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ভুটান, বাংলাদেশ ও নেপাল মিলে ৫১টি এমন তীর্থস্থান রয়েছে। এটি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তীর্থস্থান।
সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এস এম মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সাতক্ষীরা আসবেন, এমন একটি পরিকল্পনা চলছে। তবে, সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here