ভারতফেরত ৪৩৯ বাংলাদেশি কোয়ারেন্টাইনে, করোনা পজিটিভ ৩

14

কল্যাণ রিপোর্ট : ভারতে করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট রোধে বাংলাদেশ সরকার দুই দেশের মধ্যে স্থলপথে পাসপোর্টধারী যাত্রী যাতায়াত ১৪ দিন বন্ধ ঘোষণা করলেও আটকে পড়া ব্যক্তিরা দূতাবাসের অনুমতিতে ফিরছেন নিজ নিজ দেশে। ফেরত আসা বাংলাদেশিরা বেনাপোল পৌর এলাকায় ৭টি আবাসিক হোটেলে ১৪ দিনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন।
এদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত তিনজন। তারা ভারতে গিয়ে করোনা পজিটিভ হয়। তবে নতুন করে এপথে কোনো পাসপোর্টধারীর ভারত ও বাংলাদেশ ভ্রমণ এখন পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে।
নিষেধাজ্ঞার পরে গত সোমবার সন্ধ্যা থেকে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভারতে আটকা পড়া ৪৩৯ জন বাংলাদেশি বেনাপোল স্থলপথে দেশে ফিরেছেন। বাংলাদেশ থেকে ভারতে ফিরেছেন ৬৭ জন। তবে আগত বাংলাদেশিদের মধ্যে তিনজন করোনা পজিটিভ ছিলেন।
এদিকে চিকিৎসা শেষে হাতে খরচের টাকা না থাকায় ভারত ফেরত বাংলাদেশিরা নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে অসহায় হয়ে দিন পার করছেন বলে জানা গেছে। তবে সরকারি নির্দেশনা মানতে তাদের বাধ্য হয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার আশরাফুজ্জামান বলেন, ভারত ফেরত বাংলাদেশিদের সবাইকে বেনাপোল বন্দর এলাকার ৭টি আবাসিক হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন। সেখানে সব খরচ যাত্রীদের বহন করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, এছাড়া ফেরত আসা করোনা পজিটিভ ৩ বাংলাদেশিকে যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটের রেড জোনে রাখা হয়েছে।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব বলেন, দূতাবাসের ছাড়পত্র থাকায় আটকে পড়া যাত্রীদের ৪৩৯ জন ভারত থেকে ফিরেছেন। ভারতীয় নাগরিক ফিরেছেন ৬৭ জন। তবে নিষেধাজ্ঞার পর থেকে বাংলাদেশি কোনো পাসপোর্টযাত্রী নতুন করে ভারতে যাননি এবং কোনো ভারতীয় বাংলাদেশে আসেননি।

Previous articleযশোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র অপু
Next articleঝিনাইদহে ইজিবাইক-প্রাইভেটকার সংঘর্ষে নিহত ৩

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here