১২ দিনে ভারত থেকে ফিরছেন ২৪৭৫ বাংলাদেশি, আক্রান্ত ১৩

11

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি : করোনার কারণে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত দিয়ে চলাচল বন্ধ রেখেছে বাংলাদেশ। গত ২৬ এপ্রিল থেকে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বন্ধ রয়েছে। এ ১২ দিনে ভারত থেকে ফিরেছেন দুই হাজার ৪৭৫ বাংলাদেশি। ফেরত আসাদের মধ্যে ১৩ জন ছিলেন করোনা পজিটিভ। ভারতে গিয়ে তারা আক্রান্তের শিকার হন।
এদিকে ভারতফেরত এসব বাংলাদেশিদের ভোগান্তি ও অর্থ খরচ কমাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে যশোরের শার্শা উপজেলা প্রশাসনের করোনা প্রতিরোধ কমিটি। জটিল রোগে আক্রান্তদের হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থাসহ যানবাহন ও হোটেল খরচ সাশ্রয়ের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ইমিগ্রেশনে দালাল শ্রেণির বহিরাগতদের প্রবেশ রোধেও জারি করা হয়েছে সতর্কতা।
শনিবার (৮ মে) সকালে বেনাপোল বন্দরের টার্মিনাল ও ইমিগ্রেশন ভবনে সাঁটানো যাত্রী সুবিধার নোটিশে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।
ভারতফেরত যাত্রী রহিম জানান, যাত্রীদের ভোগান্তি ও হয়রানি রোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছ এতে তারা অনেকটা উপকৃত হবেন। চলমান ক্রান্তিকাল সময়ে এ নির্দেশনা বহাল রাখার আহ্বান জানান যাত্রীরা।
শার্শা উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মীর আলীফ রেজা জানান, ভারতফেরত যাত্রীরা যাতে কোনোভাবে দালাল শ্রেণির মানুষের দ্বারা হয়রানির শিকার না হয় এজন্য ইমিগ্রেশন ও বন্দরের যাত্রী টার্মিনালের একাধিক জায়গায় বিভিন্ন সতর্কবার্তা দিয়ে ব্যানার দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জটিল রোগে আক্রান্ত মুমূর্ষু যাত্রীদের সঙ্গে থাকা কাগজপত্র পরীক্ষা করে হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যাত্রীদের হোটেল ও যানবাহন ভাড়া সাশ্রয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমন্বয় করা হয়েছে। কিলোমিটার প্রতি নন-এসি যানবাহন ভাড়া ১২.৫০ টাকা ও এসিতে ১৭.৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। হোটেল ভাড়া অর্ধেক নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে হোটেল মালিকদের।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার বিচিত্র মল্লিক জানান, নিষেধাজ্ঞার গত ১২ দিনে ভারত থেকে ফিরেছেন দুই হাজার ৪৭৫ জন। ফেরত আসা যাত্রীদের মধ্যে ১৩ জন ছিলেন করোনা পজিটিভ। এরা ভারতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হন। আক্রান্ত যাত্রীদের যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটের রেড জোনে ও সাধারণ যাত্রীদের যশোর, খুলনা সাতক্ষীরা বিভিন্ন আবাসিক হোটেল এবং জটিল রোগে আক্রান্তদের ১৪ দিন হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন খরচ গত বছর সরকার বহন করলেও এবার যাত্রীদের নিজেদের ব্যয় করতে হচ্ছে।
বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ভারতের করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার গত ২৬ এপ্রিল থেকে ১৪ দিনের জন্য ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত দিয়ে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এর মধ্যে নতুন করে কোনো পাসপোর্টধারী যাত্রী দুই দেশের মধ্যে যাতায়াত করেননি। তবে নিষেধাজ্ঞার আগে যারা ভারতে আটকা পড়েছিলেন তারা হাইকমিশনের ছাড়পত্র নিয়ে দেশে ফিরছেন।

Previous articleযশোরে ভারতফেরত দুইজনের শরীরে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত
Next articleভারতীয় ধরন ঠেকাতে যশোর বিমানবন্দরে কড়াকড়ি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here